সন্তানের অত্যাচারে ঘর ছাড়া বাব-মা

নাঙ্গলকোট (কুমিল্লা) প্রতিনিধি

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটের লক্ষীপুর গ্রামের আব্দুল গফুর ও তার স্ত্রী’কে জিম্মি করে ষ্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নিয়ে ও জমি দখল করে বাড়ীঘর ছাড়া করার অভিযোগ উঠেছে তার ছেলে রবিউল হোসেন, ইমাম হোসেন, মেয়ে মাসুমা আক্তার, বিলকিছ আক্তারের বিরুদ্ধে। এ ব্যাপারে অসহায় পিতা-মাতা কুমিল্লার আদালতে মামলা করেও সন্তানদের ভয়ে বাড়ীঘরে ফিরতে পারেনি।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বটতলী ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামের আব্দুল গফুর ড্রাইভারের প্রথম স্ত্রী ৩ বছর পূর্বে মারা যায়। পরে ছেলে-মেয়েরা তাকে পুন:রায় বিয়ে করান একই উপজেলার জোড্ডা পূর্ব ইউনিয়নের বাইয়ারা গ্রামে। বিয়ের পর প্রথম স্ত্রীর ছেলে-মেয়েরা পিতা ও সৎমাকে সন্তান না নিতে চাপ সৃষ্টি করে। বিয়ের কিছুদিন পর আব্দুল গফুর ড্রাইভারের দ্বিতীয় স্ত্রী ফাতেমা আক্তারের গর্ভে সন্তান আসার খবর শুনে ক্ষিপ্ত হয়ে যায় ছেলে-মেয়েরা। এরপর থেকে দফায়-দফায় পিতা-মাতার উপর হামলা করে তারা। এনিয়ে সামাজিক ভাবে কয়েক বার সালিশ বৈঠক বসলেও ছেলে-মেয়েরা সিদ্ধান্ত অমান্য করে। গত ৮ জুন পিতা-মাতা ও তাদের ১৮ মাসের শিশু কন্যা নাহিদা আক্তারকে নির্যাতন করে ঘরে জিম্মি করে হত্যার হুমকি দিয়ে ষ্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নিয়ে তাদের স্বর্ণলংকার, নগদ ৫০ হাজার টাকা ও আসবাব পত্র লুট করে নিয়ে গিয়ে বাড়ী থেকে বের করে দেয়। পরে দ্বিতীয় স্ত্রীর আত্মীয় স্বজনরা এসে তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ ব্যাপারে নাঙ্গলকোট থানায় অভিযোগ করলে থানা পুলিশ তদন্ত করে প্রতিবেদন কুমিল্লার আদালতে পাঠায়। মামলার খবরে ছেলে-মেয়েরা ক্ষিপ্ত হয়ে তাদেরকে হত্যা করবে বলে হুমকি দেয়ার পর থেকে আব্দুল গফুর ও তার স্ত্রী প্রাণ ভয়ে পালিয়ে বেড়াচেছ। এ ব্যাপারে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন ভ‚ক্তভোগীরা।
স্থানীয় ইউপি সদস্য মোহাম্মদ হানিফ বলেন, আমরা  স্থানীয় ভাবে কয়েক দফা সালিশ করে সমাধান করলেও আব্দুল গফুরের ছেলেমেয়েরা তা অমান্য করে

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *